শিরোনামঃ
রোহিঙ্গাদের ৮৫% শিশুই বিভিন্ন জটিল রোগে আক্রান্তসেই ‘পুলিশের ভিক্ষুক মায়ে’র দায়িত্ব নিতে চান এসআই বশিরআজ শুভ মহালয়া : চণ্ডীপাঠে দেবী দুর্গাকে আবাহনআঞ্চলিক বৈশিষ্ট্যতায় জনস্রোতে মিশে যাচ্ছে রোহিঙ্গারাকোন সতর্কবার্তায় আমরা ভীত নই –সুচিরোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা বন্ধে ব্রিটেন-ফ্রান্সের আহবানরোহিঙ্গাদের দূদর্শার কারণ আরসা বা আল ইয়াকিনবাংলাদেশকে সংঘর্ষের দিকে নিয়ে যাচ্ছে মিয়ানমাররোহিঙ্গাদের পাশে দাঁড়িয়েছে আমার দেশের মানুষ —প্রধানমন্ত্রীরোহিঙ্গারা পাহাড় কাটায় অপূরণীয় ক্ষতিতে কক্সবাজারদেবী দুর্গার আগমনে ব্যস্ত কক্সবাজারের মৃৎ শিল্পীরাপিতৃপক্ষের অবসানে দেবীপক্ষের শুভ সূচনাজেলা হিন্দু পরিষদের সম্পাদকের মাতার মৃত্যুতে শোকনতুন অফিস বাজারে সাব ইজারাদারদের দৌরাত্ম ॥ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনাপেকুয়ায় গাঁজাসহ নারী আটক

রোহিঙ্গাদের বায়োমেট্রিক নিবন্ধন শুরু

1234.jpg

রোহিঙ্গাদের বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন শেষে নিবন্ধন কার্ড প্রদান করছেন সেনা কর্মকর্তা।

উখিয়া প্রতিনিধি :
মাত্র ১২ জন রোহিঙ্গাকে তালিকাভুক্ত করে শেষ হয়েছে মিয়ানমার থেকে আসা শরণার্থীদের বায়োমেট্রিক নিবন্ধনের প্রথম দিন। কর্মকর্তারা বলছেন, প্রথমদিন একটি বুথ দিয়ে কাজ শুরু হলেও, পর্যায়ক্রমে এর সংখ্যা বাড়ানো হবে। নিবন্ধন না করলে কোনো ধরণের মানবিক সহায়তা পাবেন না কেউ জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
সোমবার সকাল থেকে কাজ শুরুর কথা থাকলেও রোহিঙ্গাদের বায়োমেট্টিক নিবন্ধন শুরু হয় রাত পৌনে নয়টায়। রাবেয়া খাতুন নামের এক নারীর তথ্য সংগ্রহের মধ্য দিয়ে শুরু হয় কার্যক্রম। রাত দশটা পর্যন্ত চলা তালিকা তৈরির কাজে সাড়া দেন ১২ জন রোহিঙ্গা।
প্রাথমিকভাবে একটি বুথে কাজ শুরু হয়েছে। আজ বিকাল থেকে পর্যায়ক্রমে আরও ১৬টি বুথ স্থাপন করা হবে। এসব বুথে রোহিঙ্গাদের ছবি, আঙ্গুলের ছাপ, নাম-পরিচয় এবং মিয়ানমারের বসতির ঠিকানা সংগ্রহ করা হবে।
নিবন্ধনের বাইরে যাতে কেউ না থাকে, সে লক্ষ্যে আশ্রয়কেন্দ্রের জন্য নির্ধারিত জায়গায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে রোহিঙ্গাদের। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলছেন, নিবন্ধন না করলে, সহায়তা পাবেন না কেউ।
জাতিসংঘসহ বিভিন্ন সংস্থা বলছে, নতুন করে বাংলাদেশে এসেছে প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা। আগে বিভিন্ন সময় এসেছে আট লাখ রোহিঙ্গা। তাদের নিবন্ধন শেষ হতে কতদিন লাগবে তা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না প্রশাসনের কর্মকর্তারা।
PinIt
Top