শিরোনামঃ
সিইউজের কর্মসুচী সাময়িক স্থগিতবৃহত্তর চট্টগ্রাম ডেন্টাল এসোসিয়েশন এর ভাষা শহীদের শ্রদ্ধাঞ্জলীভাষা শহীদদের শ্রদ্ধা জানালেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিকলীগচট্টগ্রাম নগরীর পতেঙ্গায় র‌্যাব-৭’র অভিযানে বিদেশী মদসহ আটক- ২জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে ভোট গ্রহন চলছেউখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে ১১ বিদেশী নাগরিক আটকরাত পোহালেই কক্সবাজার আইনজীবী সমিতির নির্বাচনটেকনাফে বিজিবির অভিযানে ৩৩ কোটি ৬০লক্ষ টাকার ইয়াবা উদ্ধারকক্সবাজারের মহেশখালীতে আনসার সদস্যের মৃত্যুপেকুয়ায় যথাযোগ্য মর্যাদায় মাতৃভাষা দিবস পালিতপেকুয়ায় বিদ্যুত স্পৃষ্টে আহত-১পেকুয়ায় বাজারপাড়া সড়কে চলছে মাটি ভরাট কাজ‘নির্বাচন না হলে দেশে ভুতের সরকার আসবে”–ইনুপেকুয়ার ইয়াবা ডন শাহেদ ইকবাল পুলিশের হাতে আটকচকরিয়ায় র‌্যাবের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শিশু ধর্ষণকারী নিহত

লাইভ ফিস ফ্রাই খেতে কক্সবাজারে পর্যটকদের ভীর

2a8677a6d8587c604f0627649cdde621-6r.jpg

সাগরকণ্ঠ রিপোর্ট :

বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র নগরী কক্সবাজারে বিশেষ আকর্ষন লাইভ ফিস ফ্রাই। কলাতলী সী-ইন পয়েন্টে মেলে টাটকা সামুদ্রিক মাছ ও কাকড়া। শুধু আপনার পছন্দ মতো মাছ অথবা কাকড়াটি বেচে দোকানীকে বললেই মুহুর্তের মধ্যে ফ্রাই করে দিবে আপনাকে। আর গরম গরম এই ফিস ফ্রাই খেতে ভীর জমাচ্ছেন পর্যটকরা।


বঙ্গোপসাগরের বিশাল জলরাশীকে বলা হয় মাছের রাজ্য। কক্সবাজারে বেড়াতে আসা পর্যটকদের পছন্দের খাবার তালিকার শীর্ষে থাকে সামুদ্রিক মাছ। এ কারণে পর্যটন মৌসুমে মাছের দামও বেড়ে যায় কয়েক গুণ। সামুদ্রিক চিংড়ি, লবস্টারের পাশাপাশি হরেক রকমের চেনা-অচেনা মাছও খাচ্ছেন পর্যটকেরা।


১৫ জানুয়ারি রাত আটটায় কলাতলী সী-ইন পয়েন্টে গিয়ে অন্তত ২০টি মাছ ভাজার দোকান দেখা গেছে। সবগুলো দোকানের সামনেই ছিল পর্যটকদের ভিড়। এসব দোকানে সাজিয়ে রাখা হয়েছে চাপা, কোরাল অথবা কাকড়াসহ নানান প্রজাতির সামুদ্রিক মাছ। রাস্তার দু পাশে গরম তেলে কড়াইয়ে তা ভাজাও হচ্ছে। শুধু বেছে দোকানীকে দিলেই মুহুর্তে তৈরী ফিস ফ্রাই। তারপর চলে ভাজা মাছ খাওয়ার প্রতিযোগীতা। বর্তমান পর্যটক মৌসুমে বেড়েছে পর্যটক। তাই কেনা বেচাও বেশী এমনটি জানালেন উদ্যোক্তরা।


এমনই এক উদ্যোক্ত জেসমিন আক্তার জানান, এখন কক্সবাজারে পর্যটক সমাগম বেশী। তাই আমাদের ব্যবসাও আগের তুলনায় অনেক বেশী বেড়ে গেছে। পাশাপাশি অন্যান্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠানও লাভের মুখ দেখতে শুরু করেছে। ডুবু তেলে কড়া করে মাছ ভাজা। সমুদ্রের এই তরতাজা ভাজা মাছ খাওয়ার আনন্দ একেবারেই আলাদা। আর এইরকম সৌভাগ্য যে সবার হয় না এমনটাই জানাচ্ছে পর্যটকরা।


এক পর্যটক বলেন, আমি কক্সবাজার মাঝে মধ্যে লাইভ ফিস খেতে আসি। লাইভ ফিস খেতে আমার খুবই ভাল লাগে। একদম মাংসের মত খুবই সুশাদু এবং বিভিন্ন প্রজাতের সামুদ্রিক লাইভ ফিস এখানে পাওয়া যায়।

পর্যটকদের জন্য মাছ খাওয়ার এ প্রক্রিয়াটা চলেছে মাত্র ৫/৬ বছর আগে থেকে। পসরা যে বেশ জমে উঠেছে তা বুঝা যায় দোকানিদের ব্যস্থতা আর রসনা বিলাসীদের ভীর।

 

PinIt
Top
%d bloggers like this: